الانشاء : الصبر | রচনা : ধৈর্য | Alim Arabic 2nd Paper - আলিম আরবি দ্বিতীয় পত্র | Class Alim (الصف العالم)

(toc)

  الصبر 

 الْمُقَدِّمَةُ :

الْحَمْدُ لِلَّهِ الَّذِي وَعَدَ لِلصَّابِرِينَ أَجْرًا عَظِيمًا، وَالصَّلوة وَالسَّلَامُ عَلَى النَّبِي ﷺ الَّذِي صَبَرَ عَلَى أَذَى الْكَافِرِينَ صَبْرًا جَمِيلًا. 

مَعْنَى الصَّبْرِ :

الصَّبْرُ لُغَةُ : التَّحَتُلُ وَالتَّجَادُ وَالْحَبْسُ، وَفِي الاصطلاح : الصَّبْرُ هُوَ التَّحَوُّلُ عَلَى الشَّدَائِدِ وَحَبْسُ النَّفْسِ عَنِ . الْمَكَارِهِ وَالْجَزْعِ وَالْفَزَعِ مَعَ الْإِسْتِقَامَةِ وَالثَّبَاتِ عَلَى الْحَقِّ.

أهميَّةُ الصَّبْرِ :

لِلصَّبْرِ أَمَمَيَّةُ كَبِيرَةُ فِي حَيَاةِ الْإِنْسَانِ، فَمَنْ يَصْبِرُ عَلَى الشَّدَائِدِ وَالْمَكَارِهِ فِي سَبِيلِ تَحْصِيلِ الْغَايَةِ مَعَ الثَّبَاتِ والاستقامة يَنْجَعُ وَيَظْفَرُ. وَمَنْ يَجْزَعُ وَيَفْزَعُ وَلَا يَضِيرُ لَا يَعْلَعُ وَلَا ينجَعُ بِحُصُولِ الْغَايَةِ فَلَا بُدَّ لِكُلِ نجاح وفلاح الصبر والتحمل -

الصَّبْرُ ذَرِيعَةُ الْفَوْز :

إِنَّ الصَّبْرِ ذَريعَةُ الْقَوْدِ وَالنَّجَاحِ فِي الدُّنْيَا وَالْآخِرَةِ، ولهذا قِيلَ : الصَّبْرُ جِيْلةُ لِمَنْ لا جِبْلَةَ لَهُ. وَمَنْ صَبَرٌ ظَفِرٌ. وَالصَّبْرُ مِفْتَاحُ الْفَيْنِ وَالْفَرْج. وَاللهُ بَشَرَ الصَّابِرِينَ، حَيْثُ قَالَ تَعَالَى : وَبَشِّرِ الصَّابِرِينَ".

فَضْلُ الصَّبْرِ :

لِلْصَبرِ فَضْلَّ عَظِيمٌ، وَهُوَ مِنَ الصَّفَاتِ الْمَحْمُودَةِ. نُطقَت بِفَضْلِهِ كَثِير مِنَ الْآيَاتِ الْقُرْآنِيَةِ وَوَصَفَهُ اللَّهُ بِأَنَّهُ خَيْرُ الْأُمُورِ فَقَالَ تَعَالَى : "وَلَئِنْ صَبَرْتُمْ لَهُوَ خَيْرٌ لِلصَّابِرِينَ". 

الصَّبْرُ مِنْ صفَاتِ الْأَنْبَاءِ :

إِنَّ الصَّبْرَ مِنْ صِفاتِ الْأَنْبِيَاءِ وَالصَّالِحِينَ، إِنَّهُمْ صَبَرُوا عَلَى أَذَى الْقَوْمِ وَتَكْذِيبَهُمْ وَبلَغُوا مَا أَمَرَهُمُ الله بِيْنِهِ وَلَمْ يُبَالُوا بِالْمَصَائِبِ وَالشَّدَائِدِ فِي سَبِيلِ الدَّعْوَةِ إِلَى اللهِ كَمَا قَالَ اللهُ تَعَالَى : فَاصْبِرْ كَمَا صَبَرَ أُولُوا الْعَزْمِ مِنَ الرُّسُلِ"

 نتيجة الصَّبْرِ :

إِنَّ اللهَ سُبْحَانَهُ وَتَعَالَى وَعَدَ لِلصَّابِرِينَ أَجْرًا كَبِيرًا فِي الْآخِرَةِ، وَالنَّصْرُ وَالإِمْدَادُ فِي الدُّنْيَا، وَإِنَّهُ سُبْحَانَهُ وَتَعَالَى يَقُولُ : إِلَّا الَّذِينَ صَبَرُوا وَعَمِلُوا الصَّالِحَاتِ لَهُمْ مَغْفِرَةً وَاَجْرٌ كَبِيرُ . وَقَالَ أَيْضًا : بَلَى إِنْ تَصْبِرُوا وَتَتَّقُوا وَيَأْتُوكُمْ مِنْ فَوْرِهِمْ هَذَا يُمْدِدْكُمْ رَبُّكُمْ

 الْخَاتِمَةُ :

الصَّبْرُ مِنَ الصَّفَاتِ المَحْمُودَةِ، وَهُوَ وَسِيْلَةُ الْفَلَاحِ وَالنَّجَاحِ. فَعَلَيْنَا أَنْ نَصْبِرَ عَلَى الْبَأْسَاءِ وَالضَّرَاءِ.



ধৈর্য

উপস্থাপনা :

সকল প্রশংসা মহান আল্লাহর, যিনি ধৈর্যশীলদেরকে বিরাট প্রতিদান দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। দরূদ ও সালাম বর্ষিত হোক মহানবী (স)-এর প্রতি, যিনি কাফেরদের দেওয়া কষ্টের ওপর উত্তমভাবে ধৈর্যধারণ করেছেন।

صَبَر এর পরিচয়:

- صَبَرএর শাব্দিক অর্থ সহ্য করা, দৃঢ়তা প্রদর্শন করা ও বিরত থাকা। পরিভাষায় صَبَر তথা ধৈর্য হলো বিপদ সহ্য করা, নফসকে মন্দ কাজ ও ভয়ভীতি হতে বিরত রাখার পাশাপাশি সত্যের ওপর স্থির ও অবিচল থাকা।

ধৈর্যের গুরুত্ব:

মানবজীবনে ধৈর্যের বিরাট গুরুত্ব রয়েছে। যে ব্যক্তি বিপদাপদ ও কষ্টে দৃঢ়তা ও স্থিরতার সঙ্গে লক্ষ্য অর্জনের পথে ধৈর্যধারণ করে, সে সফল ও কৃতকার্য হয়। আর যে ব্যক্তি ভীতসন্ত্রস্ত হয় এবং ধৈর্যধারণ করে না, সে লক্ষ্য অর্জনে সফল ও কৃতকার্য হয় না। কাজেই সকল সফলতা ও কল্যাণ অর্জনের জন্য ধৈর্য ও সহনশীলতা প্রয়োজন।

ধৈর্য সফলতার মাধ্যম:

ধৈর্য ইহকাল ও পরকালে সফলতা ও কৃতকার্যতা অর্জনের মাধ্যম। এ কারণে কথিত আছে, যার কোনো কৌশল নেই তার জন্য ধৈর্যই কৌশল। আর যে ব্যক্তি ধৈর্যধারণ করে সে সফল হয়। ধৈর্য সফলতা ও আনন্দের চাবিকাঠি। আল্লাহ তায়ালা ধৈর্যশীলদেরকে সুসংবাদ দিয়েছেন। তিনি ইরশাদ করেন, “আর ধৈর্যশীলদের সুসংবাদ দাও।

ধৈর্যের ফযিলত :

ধৈর্যের বিরাট ফযিলত রয়েছে। তা প্রশংসিত গুণ। এর ফযিলত বর্ণনায় কুরআনের অসংখ্য আয়াত বর্ণিত হয়েছে। আল্লাহ তায়ালা ধৈর্যধারণকে হিতকর কাজ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। আল্লাহ তায়ালা ইরশাদ করেন, “যদি তোমরা ধৈর্যধারণ কর, তবে জেনে রেখ। তা ধৈর্যশীলদের জন্য হিতকারী ।

ধৈর্য নবীদের গুণ:

ধৈর্য নবী ও সংব্যক্তিগণের গুণ। তাঁরা সম্প্রদায়ের কষ্ট ও মিথ্যারোপের ওপর ধৈর্যধারণ করেছেন এবং আল্লাহর নির্দেশিত বিষয় প্রচার করেছেন। তারা আল্লাহর পথে দাওয়াত প্রদানের ক্ষেত্রে বিপদাপদের পরোয়া করেননি। যেমন আল্লাহ তায়ালা ইরশাদ করেন, “সুতরাং আপনি দৃঢ়তা পোষণকারী রাসুলদের মতো ধৈর্যধারণ করুন"।

ধৈর্যের ফলাফল:

আল্লাহ তায়ালা ধৈর্যশীলদেরকে পরকালে উত্তম পুরস্কার প্রদান ও দুনিয়াতে সাহায্য সহযোগিতার প্রতিশ্রুতি প্রদান করেছেন। আল্লাহ তায়ালা ইরশাদ করেন, “তবে যারা ধৈর্য ধারণ করবে এবং ভালো কাজ করবে তাদের জন্য রয়েছে ক্ষমা ও বিরাট প্রতিদান । তিনি আরও বলেন, “হ্যাঁ, নিশ্চয় তোমরা যদি ধৈর্যধারণ কর এবং আল্লাহকে তা কর তখন তারা আচমকা তোমাদের ওপর আক্রমণ করলে আল্লাহ তোমাদেরকে সাহায্য করবেন।

উপসংহার :

ধৈর্য একটি প্রশংসনীয় গুণ। এটি সফলতার মাধ্যম। কাজেই আমাদের কর্তব্য হলো, দুঃখ ও কষ্টে ধৈর্যধারণ করা।


#buttons=(Accept !) #days=(20)

Our website uses cookies to enhance your experience. Learn More
Accept !